FriendsDiary.NeT | Friends| Inbox | Chat
Home»Archive»

ᗩᴘᴏᴄᴀʟʏᴘᴛᴏ

ᗩᴘᴏᴄᴀʟʏᴘᴛᴏ

*

“যতক্ষণ পর্যন্ত তারা নিজে নিজেই ধ্বংস না হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত কোনো মহান সভ্যতাকে জয় করা যায় না।”— উইলিয়াম জেমস ডিউর‍্যান্ট(দার্শনিক ও লেখক)

আদিবাসী মায়ান সভ্যতার ইতিহাস, জীবনযাপন, অসভ্যতা, নৃশংসতা, বর্বরতা, কুসংস্কার ইত্যাদির একটি চমৎকার উপস্থাপন এই মুভিটি, যদিও অনেক বিতর্কিত ও সমালোচিত। বলছিলাম—

🎬 ᗩᴘᴏᴄᴀʟʏᴘᴛᴏ (2006)
✅Genres: Epic, Action, Thiller, Adventure
Director- Mel Gibson
Actors- Rudy Youngblood..

🆓 #স্পয়লারমুক্ত
অ্যাপোক্যালিপ্টো মুভিটির পটভূমি তৈরি করা হয়েছে মেক্সিকোর অন্তর্গত ইউকাটান উপদ্বীপে। এর সময়কাল আজ থেকে প্রায় ৬০০ বছর আগে যখন স্পেনীয় বাহিনী দক্ষিণ আমেরিকা আক্রমণের মাধ্যমে ঐতিহাসিক মায়া সভ্যতা ধ্বংস করে দেয়। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মুভিটিতে একজন ব্যক্তির সংগ্রামের আখ্যান রচিত হয়েছে যে আগ্রাসী মায়ান সভ্যতার আগ্রাসন থেকে নিজ সভ্যতা ও সংস্কৃতি রক্ষার সংগ্রাম চালিয়ে যায় আমৃত্যু।

এই যুগে এসে কয়েক হাজার বছরের পুরনো একটি সভ্যতাকে ফুটিয়ে তোলার কঠিন কাজটি অবলীলায় করে দেখিয়েছেন গিবসন & টিম।
দুর্দান্ত সেট ডিজাইন ও রূপসজ্জার সঙ্গে ছিল অসাধারণ দৃশ্যায়ন।

গলা-অবধি পানিতে এক সন্তানকে পিঠে রেখে আরেক সন্তানকে জন্মদান, হাতে করে সদ্যজাত শিশুকে পানি থেকে হাতে উঠিয়ে বাঁচিয়ে রাখার সেই জীবন্ত দৃশ্যগুলো চোখ আর মনকে বিশেষভাবে ছুঁয়ে যাবেই।

এতে নামিদামি কোনো অভিনেতাই নেই, সকল কুশীলবই নতুন। নতুন অভিনেতাদের কাছ থেকে এধরনের নিখুঁত অভিনয় বের করে আনা চাট্টিখানি কথা নয়!
পুরো সিনেমার সংলাপগুলো ছিল মায়ান ভাষাতেই। মায়ান ভাষা হলেও ইংরেজি সাবটাইটেল থাকায় আর সিনেমার কাহিনী প্রাণবন্ত হওয়ায় দর্শককে বুঝে উঠতে খুব বেশি বেগ পেতে হবে না।

❌ #সমালোচনা
কিন্তু অনেক সুনাম, প্রাপ্তি আর সফলতার পরেও অ্যাপোক্যালিপ্টোর বিরুদ্ধে রয়েছে অনেক সমালোচনা, রয়েছে ইতিহাস বিকৃতির গুরুতর অভিযোগ। নৃতত্ত্ববিদ এবং প্রত্নতত্ত্ববিদেরা এর কড়া সমালোচনা করেছেন বেশ কয়েকটি ইস্যুতে।

তাদের মতে মায়ানদের প্রকৃত ইতিহাস তুলে না ধরে তাদেরকে দেখানো হয়েছে হিংস্র, বর্বর, পাশবিক ও উগ্রবাদী হিসেবে। সেই সঙ্গে খুব কৌশলে সাদা চামড়া মানুষদের তুলে ধরা হয়েছে সভ্য, উদার, ত্রাণকর্তা হিসেবে।
সিনেমাটিতে নরবলি দেওয়ার যে অংশটি দেখানো হয়েছে, তা নিয়েও রয়েছে তীব্র সমালোচনা। নরবলির প্রথা মায়ানদের মধ্যে ছিল বটে, তবে সে নরবলি গণহারে হতো না। গণহারে নরবলি দেওয়া ছিল মূলত অ্যাজটেকদের সংস্কৃতি।

✅🔚↩️
মানুষের ধ্বংস, অবক্ষয়, পতন ইত্যাদির আসল কারণ হলো নিজেদের মধ্যে দাঙ্গা, অন্তর্দ্বন্দ্ব।
সিনেমার মূল চরিত্র অন্য কোথাও চলে যাওয়ার সুযোগ সত্ত্বেও, এত নিপীড়ন, নির্যাতন সহ্য করেও পরিবারকে নিয়ে নিজের পৈতৃক পরিচয় আবাসভূমি, জন্মভূমি বনেই থেকে গেছেন।
ঐতিহাসিক সমালোচনা বাদ দিলে মুভিটিতে রূপকার্থে আমাদের বর্তমান সময়ের এই পরিস্থিতি গুলোই যেন ফুটিয়ে তুলেছেন পরিচালক।

তাছাড়া মুভির BGM, স্কোর, ক্যামেরার কারুকাজ ইত্যাদি এককথায় জাস্ট দুর্দান্ত।
ড্রামা, থ্রিলার, এডভেঞ্চার অ্যাকশান কি চায়? কোনো কিছুরই কমতি নেই সিনেমাটিতে। একেবারে এক বসাতেই দেখে শেষ করার মতো একটি সিনেমা; দেখা শেষ হয়ে গেলেও আবার ইচ্ছে হবে বিশেষ বিশেষ দৃশ্যগুলো টেনে দেখার।

IMDb- 7.8/10
Rotten Tomatoes- 66% (fresh)
Metacritic- 68%
Google liked- 93%
P.R- 8+/10
[মুভিটি আরও বেটার রেটিং ডিজার্ভ করে, সমালোচনা ছাড়া]

👉Anyway Must Watch.

*




0 Comments 235 Views
Comment

© FriendsDiary.NeT 2009- 2021